আপডেট : ২৫ ডিসেম্বর, ২০১৬ ১১:০৬

সৌম্য আর মোস্তাফিজের ফেরার আশায়!

অনলাইন ডেস্ক
সৌম্য আর মোস্তাফিজের ফেরার আশায়!

দুদিন আগে আইসিসির বর্ষসেরা উদীয়মান খেলোয়াড়ের পুরস্কার পেয়েছেন মোস্তাফিজ। এই স্বীকৃতিটা অবশ্যই বিশেষ কিছু। তবে দলে ফেরাটাও তাঁর কাছে সমান আনন্দের, ‘আইসিসির পুরস্কার পাওয়াটা অবশ্যই স্পেশাল। তবে অনেক দিন পর আবার দলে ফিরলাম, সেটাও স্পেশাল’ এমনই জানাচ্ছিলেন মোস্তাফিজ।

গত বছর দুর্দান্ত কাটানো সৌম্যর পথ হারানোর শুরু এই বছরের শুরুতে। ১৬ টি-টোয়েন্টিতে ১৫.৯৩ গড়ে তাঁর রান ২৫৫। রান পাননি তাঁর ‘প্রিয় সংস্করণ’ ওয়ানডেতেও। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৩ ম্যাচে ৩১ রান করে অক্টোবরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলাই হয়নি। বিপিএলেও তো নিজের ছায়া হয়ে ছিলেন।

অস্ট্রেলিয়ার সিডনি ও নিউজিল্যান্ডের ওয়াঙ্গারেইতে প্রায় দুই সপ্তাহের প্রস্তুতি ক্যাম্পে বাংলাদেশের বড় প্রাপ্তি কী? সৌম্য সরকারের রানে ফেরার ইঙ্গিত আর কাঁধের চোট কাটিয়ে পাঁচ মাস পর মোস্তাফিজুর রহমানের ম্যাচ খেলা। সৌম্য খুব বড় কিছু করেননি। তবে প্রস্তুতি ম্যাচে যেভাবে ব্যাটিং করেছেন তাঁকে নিয়ে নতুন করে স্বপ্ন দেখতে পারে বাংলাদেশ। সিডনি সিক্সার্সের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ৮৪ রান তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ঝড় তুলে লক্ষ্যটা অনায়াসসাধ্য করেন সৌম্যই। ৯ বলে ১ ছক্কা ও ৩ চারে করেন ২০ রান। বাঁহাতি ওপেনারের ব্যাটিংয়ে ঝলক দেখা গেছে নিউজিল্যান্ড একাদশের সঙ্গে ৫০ ওভারের প্রস্তুতি ম্যাচেও। ৪৭ বলে করেছেন ৪০ রান, তাতে চার ৪টি।
কয়েক মাস ধরে সৌম্যকে খুব কাছ থেকে দেখেছেন থিলান সামারাবীরা। বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং পরামর্শক হিসেবে তাঁর কাজই হচ্ছে ব্যাটসম্যানের হারিয়ে ফেলা পথটির সন্ধান দেওয়া। সৌম্যকে সেটি দিয়েছেন সামারাবীরা, ‘ওর বাজে সময় গেছে। তারপরও গত দুই বছরে তার গড় ৪৭ (আসলে ৪২.৫২)! খারাপ সময় সব ব্যাটসম্যানেরই আসে। টেন্ডুলকার–সাঙ্গাকারারও এমন অভিজ্ঞতা হয়েছে। এই সময়ে কোচিং স্টাফদের সমর্থন খুব জরুরি।’ প্রস্তুতি ম্যাচে বাঁহাতি ওপেনারের রান আশাবাদী করছে জাতীয় দলের ব্যাটিং পরামর্শককে, ‘ইতিবাচক দিক হচ্ছে, দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে সে ভালো মেরেছে। আশা করি, এই সফরে সে ভালো করবে।’
সৌম্যর সঙ্গে ফিরছেন তাঁর সাতক্ষীরা-সাথি মোস্তাফিজও। নিউজিল্যান্ড একাদশের সঙ্গে মোস্তাফিজ বোলিং করেছেন পুরো ছন্দে। ৭ ওভারে ৩৯ রান দিয়ে নিয়েছেন ২ উইকেট। কিউই ব্যাটসম্যানদের ‘কাটারে’ ভড়কেও দিয়েছেন। কাল হ্যাগলি ওভালে আত্মবিশ্বাসী মোস্তাফিজকেই দেখল সংবাদমাধ্যম, ‘সবকিছু ভালোই যাচ্ছে। কাঁধের ব্যথা নেই। আমার স্পেশাল ডেলিভারি কাটার, সেটা ভালো হচ্ছে।’
মোস্তাফিজ নিজের সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেই। গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ইডেন গার্ডেনে কিউইদের ৫ উইকেট নিয়েছেন ২২ রানে। তবে মোস্তাফিজের সেরা বোলিং সত্ত্বেও বাংলাদেশ ম্যাচটি হেরে যায় ৭৫ রানে। বাংলাদেশ দলের তরুণ পেসার তাই মনে করেন দল হিসেবে খেলাটাই আসল, ‘আমি একা তো আর ম্যাচ জেতাতে পারব না! তবে দলের প্রস্তুতি ভালো হয়েছে। গত এক-দুই বছরে আমরা ভালো করেছি। আমাদের টিম স্পিরিট ভালো। আশা করি এবার ভালো কিছু হবে।’

উপরে