আপডেট : ১৯ মে, ২০২১ ২১:২২

গাজায় হামাস কমান্ডারদের বাড়িঘর লক্ষ্য করে অব্যাহত ইসরায়েলি হামলা

অনলাইন ডেস্ক
গাজায় হামাস কমান্ডারদের বাড়িঘর লক্ষ্য করে অব্যাহত ইসরায়েলি হামলা

ফিলিন্তিনের গাজায় দশদিন ধরে ইসরায়েলি বিমান হামলা অব্যাহত রয়েছে। ইসরায়েল বলছে, তারা সেখানে হামাস কমান্ডারদের বাড়িঘর লক্ষ্য করে হামলা অব্যাহত রেখেছে। বলা হয়, হামাসের সামরিক প্রধান মোহাম্মদ দাইফকে হত্যা করতে বেশ কয়েকটি প্রচেষ্টা চালানো হয়েছে। বুধবার (১৯ মে) এসব জানিয়েছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি। । এর আগে গত রাতে একটি অ্যাপার্টমেন্টের ওপর ইসরায়েলি বিমান হামলায় আরও দুজন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এ সংঘাতে এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ২১৯ জন ফিলিস্তিনি মারা গেছেন।

গাজা থেকে বিবিসির সংবাদদাতা রুশদি আবুলাউফ বলেছেন, ইসরায়েলি যুদ্ধবিমান দিয়ে ৭০টিরও বেশি হামলা চালানো হয়েছে। প্রায় ৫০টি হামলা হয়েছে গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় খান ইউনিস শহরে। এসময় হামাসের একটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও নিরাপত্তা স্থাপনাতেও আক্রমণ করা হয়।

আজ বুধবার সকালেও বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। তাদের প্রতিরক্ষা বাহিনী আইডিএফ বলছে, তারা হামাসের ব্যবহৃত একটি ভূগর্ভস্থ সুড়ঙ্গ নেটওয়ার্ক লক্ষ্য করে আক্রমণ চালিয়েছে। আইডিএফের মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হিদাই জিলবারমান বলেছেন, পুরো অভিযানের সময় তারা মোহাম্মেদ দেইফকে হত্যার জন্য কয়েকবার চেষ্টা চালিয়েছেন।

এদিকে ইসরায়েলকে লক্ষ্য করে গাজা থেকে রকেট নিক্ষেপ করা হয়েছে এবং হামাস বলছে যে, তারা দক্ষিণের একটি বিমান ঘাঁটিতে হামলা চালিয়েছে। হামাস বলছে, এই ঘাঁটি লক্ষ্য করে এটি তাদের দ্বিতীয় হামলা। কিন্তু ইসরায়েল এখবর অস্বীকার করেছে।

গাজায় সংকট দেখা দিয়েছে খাদ্য, ওষুধ ও পানির। কঠিন পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে সেখানে মানবিক তহবিলের আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। এক টুইটে জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, আমরা দেখছি গাজায় মানবিক বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। সেখানকার বাড়িঘর ও জরুরি স্থাপনাগুলো তীব্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ফিলিস্তিনিরা মানবেতর জীবনযাপন করছে। আন্তর্জাতিক মহলের উচিত দ্রুত মানবিক তহবিল গঠন করে ফিলিস্তিনিদের সাহায্য করা।

উপরে