আপডেট : ২১ জুলাই, ২০১৬ ২০:২৭

রিও অলিম্পিক: রুশ অ্যাথলেটদের ওপর জারি করা নিষেধাজ্ঞা বহাল

স্পোর্টস ডেস্ক
রিও অলিম্পিক: রুশ অ্যাথলেটদের ওপর জারি করা নিষেধাজ্ঞা বহাল

রাশিয়ার অ্যাথলেটদের রিও অলিম্পিকসে অংশগ্রহণের ওপর যে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল, খেলাধূলা বিষয়ক এক আন্তর্জাতিক সালিশি আদালত তা বহাল রেখেছে।

রাশিয়ার অ্যাথলেটদের বিরুদ্ধে সরকারি প্ররোচনায় ব্যাপক হারে শক্তিবর্ধক মাদক ব্যবহারের অভিযোগ ওঠার পরই তাদের রিও অলিম্পিকে অংশগ্রহণ নিষিদ্ধ করা হয়।

আটষট্টি জন রুশ অ্যাথলেট এর বিরুদ্ধে আপিল করেন, কিন্তু আদালত তা খারিজ করে দেয়। তবে রাশিয়া এই রায়কে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে মন্তব্য করে বলেছে, এর কোন আইনগত ভিত্তি নেই।

নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে যে ৬৮ জন রুশ অ্যাথলেট এবং রুশ অলিম্পিক কমিটি প্রস্তাব করেছিলো তা খারিজের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছেন লুসানের সালিশি আদালত ক্যাসের সেক্রেটারি জেনারেল ম্যাথিউ রিব।

আন্তর্জাতিক অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশন বা আইএএএফ রুশ ফেডরেশেনের ওপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে ২০১৫ সালের নভেম্বরে।

এক তদন্ত রিপোর্টে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় ব্যাপকহারে নিষিদ্ধ বলবর্ধক ব্যাবহারের প্রমাণ পাওয়ার পর ঐ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ফলে, আইএএএফ আজকের এই রায়ে স্বভাবতই সন্তুষ্ট।

আইএএএফ-এর একজন মুখপাত্র বলেছেন, সারা বিশ্বের অ্যাথলেটদের জন্য সুবিচার হলো।

তবে ফেডারেশনের সভাপতি ব্রিটেনের সেব কো মন্তব্য করেন, “উল্লাস প্রকাশের দিন নয় এটি”। তিনি বলেন কোনো অ্যাথলেটকে প্রতিযোগিতা থেকে বিরত রাখা তাদের উদ্দেশ্য নয়।

আইএএএফ-এর প্রধান বলেন, রাশিয়ার ফেডারেশনের সাথে বসে রুশ অ্যাথলেটদের জন্য একটি নিরাপদ এবং সুষ্ঠ পরিবেশ প্রতিষ্ঠার জন্য তিনি কাজ করবেন।

রাশিয়ায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া

তীব্র প্রতিক্রিয়া হচ্ছে রাশিয়ায়। রুশ প্রেসিডেন্টের অফিস অর্থাৎ ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন কোনো কোনো ব্যক্তির দোষের জন্য সবাইকে শাস্তি দেওয়ার এই নীতি কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

ক্রেমলিনের এই মুখপাত্র বলছেন অলিম্পিকের জন্য যে সব অ্যাথলেটরা অনুশীলন করছিলেন, তাদের ওপর অবিচার করা হলো। এদের বিরুদ্ধে ডোপিংয়ের কোনো অভিযোগ নেই। তাদের স্যাম্পেল নিয়মিত পরীক্ষা করা হছে। বিদেশি বিশেষজ্ঞরাই সেটা করছে।

রাশিয়া ইঙ্গিত দিয়েছে তারা অন্যান্য আইনগত পথ দেখবে।

আর চরম হতাশা ব্যক্ত করেছে রুশ অ্যাথলেটরা।

২০১২ সালের লন্ডন অলিম্পিকসে মহিলাদের পোল্ট ভল্টে সোনা জয়ী ইয়েলেনা ইসিনবাইয়েভা তাস সংবাদ সংস্থার কাছে ক্ষোভ প্রকাশ করে মন্তব্য করেছেন “অ্যাথলেটিক্সসের অন্তেষ্ট্যিক্রিয়ার জন্য ধন্যবাদ”।

বিশ্ব হার্ডল চ্যাম্পিয়ান সের্গেই শুবেনকফ বলেছেন “এটা খুবই দুঃখজনক এবং মোটেই স্বাস্থ্যকর নয়”।

তবে জামাইকার স্প্রিন্টার – বিশ্বের দ্রুততম অ্যাথলিট – উসেইন বোল্ট বলেছেন এই নিষেধাজ্ঞা একটা কড়া বার্তা দেবে এবং অনেক মানুষ এধরনের মাদক নিতে এখন ভয় পাবে।

আজকের (বৃহস্পতিবারের) এই রায়ের পর রিও অলিম্পিকসে শুধু যে রুশ অ্যাথলেটরাই অনিশ্চিত হয়ে পড়লেন তা নয়, পুরো রাশিয়ার নিষিদ্ধ হওয়ার হুমকি বেড়ে গেছে। কারণ কিছুদিন আগেই আন্তর্জাতিক ডোপিং বিরোধী সংস্থা ওয়াডার দ্বিতীয় একটি রিপোর্টে রাশিয়ার খেলাধুলোর জগতের বিভিন্ন ক্ষেত্রে সরকারি মদতে ব্যাপক মাত্রায় নিষিদ্ধ বলবর্ধক ব্যবহারের অভিযোগ করা হয়েছে।

এরপর থেকে রিওতে রাশিয়াকে নিষিদ্ধ করার জন্য আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির ওপর চাপ তৈরি হয়েছে। আজকের এই রায়ের পর সেই চাপ আরো বাড়বে সন্দেহ নেই।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

উপরে